আজ- শুক্রবার, ১৫ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

এসএসসি’র ফলাফলে বরিশাল শিক্ষাবোর্ডে সেরা পিরোজপুর

স্টাফ রিপোর্টার : এবারের এসএসসি’র ফলাফলে পাসের হারে এগিয়ে বরিশাল বোর্ডের আওতাধীন পিরোজপুর জেলা। এ জেলার পাসের হার ৮৬.৯৫ শতাংশ। তবে গত বছর ভোলা জেলা পাসের হারে সবার শীর্ষে অবস্থান করছিলো এবং পিরোজপুর জেলা ছিলো তৃতীয় অবস্থানে। অপরদিকে গত বছরের মতো এ বছরও ফলাফলে সর্বনিম্ন অবস্থান রয়েছে ঝালকাঠি জেলা।শিক্ষাবোর্ড সূত্রে জানা গেছে- প্রথম স্থানে থাকা পিরোজপুর জেলায় ২৪৫টি স্কুলের ১৩ হাজার ৬৪ জন পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেয়। যার মধ্যে পাস করেছে ১১ হাজার ৩৫৯ জন। পাসের মধ্যে ছেলের সংখ্যা ৫ হাজার ৬১ জন ও মেয়ে ৬ হাজার ২৯৮ জন। এ জেলার পাসের হার ৮০.৭২ শতাংশ।
দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে বরগুনা জেলা। পাসের হার ৮০.৮৪ শতাংশ। এ জেলায় ১১ হাজার ১২৫ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে পাস করেছে ৮ হাজার ৯৯৪ জন। পাসের মধ্যে ছেলে ৪ হাজার ৪০১ জন ও মেয়ে ৪ হাজার ৫৯৩ জন। গতবছরও এ জেলা দ্বিতীয় অবস্থানেই ছিলো।
অপরদিকে গত বছর চতুর্থ স্থানে থাকা বরিশাল জেলা একধাপ এগিয়ে এবার তৃতীয় অবস্থানে উঠেছে। এবছর এ জেলায় ৩৫ হাজার ৯১৭ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে পাস করেছে ২৮ হাজার ৫০৭ জন। পাসের মধ্যে ছেলে ১৩ হাজার ৭১ জন ও মেয়ে ১৫ হাজার ৪৩৬ জন। এ জেলার পাসের হার ৭৯.৩৭ শতাংশ।
গত বছরের শীর্ষে থাকা ভোলা জেলা তিনধাপ নিচে নেমে এবার চতুর্থ স্থানে রয়েছে। এ জেলায় পাসের হার ৭৪.৪৭ শতাংশ। অপরদিকে গতবছর এ জেলার পাসের হার ছিলো ৮৩.০২ শতাংশ। এবছর ভোলা জেলায় ১৯৩ স্কুলের ১৫ হাজার ৭৩৬ জন পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেয়। মেটা পাস করেছে ১১ হাজার ৭৮২ জন। যার মধ্যে ছেলে ৬ হাজার ২৩২ ও মেয়ে ৫ হাজার ৫৫০ জন।
অপরদিকে গতবছরের মতো এবছর বোর্ডে অবস্থান ধরে রেখেছে পটুয়াখালী জেলা। গত বছর পঞ্চম স্থানে থাকা পটুয়াখালী জেলা এবারও পঞ্চমে রয়েছে। এ জেলায় ২০ হাজার ৩ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে পাস করেছে ১৪ হাজার ৬৫৪ জন। পাসের মধ্যে ছেলে ৭ হাজার ৪৩৬ জন ও মেয়ে ৭ হাজার ২২২ জন। এ জেলার পাসের হার ৭৩.২৮ শতাংশ।
একইভাবে গতবছরের মতো এবছর বোর্ডে অবস্থান ধরে রেখেছে ঝালকাঠি জেলা। সর্বনিম্ন ৬ষ্ঠ স্থানে থাকা ঝালকাঠি জেলায় পাসের হার এবার ৬৭ দশমিক ১৪ ভাগ। এ জেলায় ১০ হাজার ৭৭৬ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে পাস করেছে ৭ হাজার ২৩৫ জন। এর মধ্যে ছেলে ২ হাজার ৯৩৭ জন ও মেয়ে ৪ হাজার ২৯৮ জন। গত বছর এ জেলার পাসের হার ছিলো ৬২.২৫ শতাংশ।

বিভাগ: বরিশাল বিভাগ,শিক্ষাঙ্গন