আজ- শনিবার, ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১লা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

ঘূর্ণিঝড়ে পিরোজপুরে দেড় শতাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে পিরোজপুরের বিভিন্ন উপজেলায় দেড় শতাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আর এতে ব্যহত হচ্ছে ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা কার্যক্রম। অনেক প্রতিষ্ঠানের ঘর পুরো বিধ্বস্ত হওয়ায়, সেখানে পাঠদান অসম্ভব হয়ে পড়েছে বলে জানিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ।

পিরোজপুর মঠবাড়িয়া উপজেলার গুলিশাখালী ছালেহিয়া সিনিয়র মাদরাসার অধ্যক্ষ মুহাঃ জহিরুল ইসলাম জানান, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে তার প্রতিষ্ঠানের একটি ঘর পুরোপুরি বিধ্বস্ত হয়েছে। ফলে সেখানে পাঠদান অসম্ভব হয়ে পড়েছে। সদর উপজেলার হুলারহাট ডিএস দাখিল মাদরাসার সুপার মোঃ মতিউর রহমান জানান, ঘূর্ণিঝড়ে তার প্রতিষ্ঠানের একটি ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ চিত্র জেলার দেড় শতাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের।

জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের তথ্য অনুযায়ী জেলার ৭ টি উপজেলায় ১৬৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পুরোপুরি ও আংশিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে জেলার অধিকাংশ এলাকায় বিদ্যুত সংযোগ না থাকায়, সেখানকার মোবাইল ও ইন্টারনেট সেবা বন্ধ রয়েছে। ফলে স্থানীয় পর্যায় থেকে সম্পূর্ণ তথ্য পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানান শিক্ষা অফিসের কর্মকর্তারা। তবে যোগাযোগ ব্যবস্থা সচল হলে ক্ষতির পরিমান আরও বাড়তে পারে বলে জানান তারা।

জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সুনীল চন্দ্র সেন জানান, জেলার সর্বত্র এখন পর্যন্ত যোগাযোগ ব্যবস্থা সচল হয়নি। তাই তারা পুরো তথ্য পাননি। তবে ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ২০০ টির কম নয়।

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলে পিরোজপুরে দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে প্রায় সাড়ে তিন হাজার হেক্টর জমির বিভিন্ন ধরনের ফসল। এছাড়া ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে ৪ হাজারের বেশি ঘরবাড়ি। তবে ক্ষতির পরিমান আরও বাড়তে পারে।

বিভাগ: অন্যান্য,জাতীয়,টপ নিউজ,ফিচার,বরিশাল বিভাগ,ব্রেকিং নিউজ,সারাদেশ