আজ- শনিবার, ১৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৩০শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

ঘূর্ণিঝড় ‘আম্ফান’ মোকাবেলায় পিরোজপুরে নেওয়া হয়েছে ব্যাপক প্রস্তুতি

আগামীকাল ১৯ মে দিবাগত রাতে বাংলাদেশের উপকূলীয় জেলাগুলোতে আঘাত হানতে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘আম্ফান’। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমান বলেছেন, ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় সরকারের সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে।
এরই ধারাবাহিকতায় ঘূর্নিঝড় আম্ফাম মোকাবেলায় পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক ও জেলা দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি আবু আলী মোঃ সাজ্জাদ হোসেন সভা করেছেন। সভায় ঘূর্নিঝড় আম্ফাম মোকাবেলায় ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। তিনি জানান জেলার ৭টি উপজেলার ২৩১টি ঘূর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এ ছাড়া স্কুল কলেজ বন্ধ থাকায় প্রত্যন্ত অঞ্চলের সকল বিদ্যালয় ভবন সমুহের চাবি সংগ্রহ করার জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এ ছাড়াও মেডিকেল টিম, ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসুচি (সিপিসি),স্কাউট, রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির স্বেচ্ছাসেবকদের প্রস্তুত রাখা হয়েছে। পর্যাপ্ত শুকনা খাবার সহ সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে প্রশাসন।
এদিকে ঘূর্ণিঝড় ‘আম্ফান’ আঘাত হানার খবরে পিরোজপুর জেলার ঝুঁকিপ্রবন এলাকা হিসেবে পরিচিত মঠবাড়িয়া, ইন্দুরকানী, ভান্ডারিয়া উপজেলার নদী ও সমুদ্র নিকটবর্তী গ্রামগুলোর মানুষের মধ্যে দেখা দিয়েছে আতংক। বিশেষ করে বেড়িবাধের পাশর্^বর্তী স্থানে বসবাস করা বাসিন্দারা রয়েছে বেশি আতংকে।

বিভাগ: অন্যান্য,জাতীয়,টপ নিউজ,বরিশাল বিভাগ,ব্রেকিং নিউজ,সারাদেশ

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.