আজ- সোমবার, ১১ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

জেলার মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা ও ছাত্র-ছাত্রীদের বৃত্তি প্রদান করেছে পিরোজপুর জেলাপরিষদ

পিরোজপুর জেলার ৫০ জন মুক্তিযোদ্ধাকে সম্মাননা এবং ১৭২জন ছাত্র-ছাত্রীকে এককালিন বৃত্তি প্রদান করেছে পিরোজপুর জেলা পরিষদ। শনিবার দুপুরে জেলা পরিষদ মাঠে জেলায় ২০১৮ সালে এস এস সিতে জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ১৫৯ জন, এইচ এস সিতে জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ১৩জন ছাত্র-ছাত্রীকে এবং ৫০জন মুক্তিযোদ্ধাকে এ বৃত্তি ও সম্মাননা প্রদান করা হয়। জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রেবেকা খান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মহিউদ্দিন মহারাজ। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রখেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) নাহিদ ফারজানা সিদ্দিকী, জেলা শিক্ষা অফিসার সুনিল চন্দ্র সেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসিফ মাহমুদ, ক্উাখালী উপজেলা চেয়ারম্যান আবু সাঈদ, ইন্দুরকানী উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড. মো. মতিউর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা গৌতম চৌধুরী, জেলা যুবলীগের সভাপতি আক্তারুজ্জামান ফুলু, জেলা পরিষদের প্যানেল মেয়র রফিকুল ইসলাম সুমন,ছাত্রী জান্নাতুল নাহার নওমী,ফারহানা ঐশি, ছাত্র মো. ইসমাইল খান প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মহিউদ্দিন মহারাজ বলেন, বর্তমান সরকার শিক্ষার উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহন করেছে। এরই ধারাবাহিকতায় সরাদেশে জেলা পরিষদের মাধ্যমে ছাত্র-ছাত্রীদের এককালিন বৃত্তির ব্যবস্থা এবং মুক্তিযোদ্ধাদের এককালিন সম্মাননা প্রদান করা হয়। তিনি বলেন, এটা পর্যাপ্ত নয়, তাই আগামীতে জেলার সকল স্কুলের মেধাবী জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ছাত্র-ছাত্রীদের জেলা পরিষদ বৃত্তি প্রদান করবে। এবং পর্যায়ক্রমে সকল মুক্তিযোদ্ধাকে এককালিন সম্মননা প্রদান করা হবে। এ সময় প্রত্যেক মুক্তিযোদ্ধাকে এককালিন ১০ হাজার টাকার প্রাইজবন্ড, এস এস সিতে জিপিএ-৫ প্রাপ্ত প্রতিজনকে এককালিন ৩ হাজার টাকার প্রাইজবন্ড এবং এইচ এস সিতে জিপিএ-৫ প্রাপ্ত প্রতিজনকে ৩ হাজার ৫শত টাকার প্রাইজবন্ড ও একটি সম্মাননা পত্র প্রদান করা হয়।
অনুষ্ঠানে জেলা পরিষদের সকল সদস্য কর্মকর্তা-কর্মচারী, মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিক ও ছাত্র-ছাত্রীরা উপস্থিত ছিল।

বিভাগ: অন্যান্য