আজ- রবিবার, ২রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ই মে, ২০২১ ইং

পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে ব্যবসায়ীকে নির্যাতনের মামলার ১৬ দিনেও গ্রেফতার হয়নি ইউপি চেয়ারম্যান

 

পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে আল আমীন নামে এক কাঠ ব্যবসায়ীকে হাত-পা বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পরে ২নং পত্তাশী ইউনিয়নের চেয়াম্যান সহ ১১ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়েরের ১৬ দিনেও গ্রেফতার হয়নি ইউপি চেয়াম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন হাওলাদার ও তার ছেলে সানি হাওলাদার। অদৃশ্য ক্ষমতার বলে এখনো ধরা ছোয়ার বাইরে চেয়ারম্যান ও তার ছেলে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা। এ ঘটনায় নির্যাতনের শিকার আল আমীনের পিতা আলী আকবার বাদী হয়ে ইন্দুরকানী থানায় একটি মামলা দায়ের করলে ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মজিদ ফকির ও সাধারণ সম্পাদক আলাম ফকিরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ বলে জানান ইন্দুরকানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ হুমায়ুন কবির।

মামলায় অভিযোগ করা হয়, ইউপি চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন এর নির্দেশে তার ছেলে সানি হাওলাদার সহ অন্যান্য অভিযুক্তরা পূর্বপরিকল্পিতভাবে আল আমীনকে তুলে নিয়ে গিয়ে নির্মমভাবে নির্যাতন করে। মামলার প্রধান দুই আসামীকে গেস্খফতার করা হলেও ধরা ছোয়ার বাইরে রয়ে গেছে ইউপি চেয়াম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন হাওলাদার এবং তার ছেলে সানি হাওলাদারকে।

আল আমিননের বাবা আলী আকবার জানান, সম্পূর্ণ পরিকল্পিতভাবে ইউপি চেয়াম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন হাওলাদারের লোক মজিদ ও আলামসহ একদল যুবক মিথ্যা অভিযোগে গত (২৮ মার্চ) রাতে আল আমীনকে হাত পা বেধে নির্মমভাবে নির্যাতন করে। পুলিশ গিয়ে তার ছেলেকে উদ্ধার না করলে হয়তো তারা তাকে মেরেই ফেলতো। এমন শারিরিক ও মানসিক নির্যাতনের উপযুক্ত বিচাই করা হয়।

এ ঘটনায় ইন্দুরকানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ হুমায়ুন কবির জানান, আল আমিননের বাবা আলী আকবার বাদী হয়ে হত্যার উদ্দিশ্যে মারধর করে পা ভেঙ্গে দেয়ার অভিযোগে ১১ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ অভিযান চালিয়ে প্রধান দুইজন আসামীকে গ্রেফতার করেছে। বাকিদের গ্রেফতারের অভিযান অব্যহত রয়েছে।

উল্লেখ্য, এক নারীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে গত (২৮ মার্চ) রাতে আল আমীনকে হাত পা বেধে নির্মমভাবে নির্যাতন করে মজিদ ও আলামসহ একদল যুবক। এরপর ইন্দুরকানী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে আল আমীনকে উদ্ধার করে পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে এক নারীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনেই একটি মামলায় গ্রেফতার করা হয় আল আমীনকে গেস্খফতার দেখানো হয়। ওই দিনই আহত ইউপি চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন ও তার ছেলে সানি হাওলাদার সহ ১১ জন কে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করে আল আমিনের বাবা।

বিভাগ: অন্যান্য,জাতীয়,টপ নিউজ,বরিশাল বিভাগ,ব্রেকিং নিউজ,রাজনীতি,সারাদেশ

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.