আজ- রবিবার, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২২শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

পিরোজপুরে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে যুবদলের সাবেক সভাপতি প্রয়াত নাসির আহম্মেদ তালুকদার এর ২৫তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

পিরোজপুর জেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি প্রয়াত নাসির আহম্মেদ তালুকদার এর ২৫ তম মৃত্যুবার্ষিকী নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে মঙ্গলবার বিকেলে জেলা বিএনপি কার্যালয়ে জেলা জাসাস এর আয়োজনে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। আলোচনা সভায় জেলা জাসাস এর আহবায়ক মো: জাহিদুল ইসলাম জাহিদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির আহবায়ক আলমগীর হোসেন, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সদস্য সদস্য সচিব গাজী ওয়াহিদুজ্জামান লাভলু। আলোচনা সভা শেষে তার রুহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।

পারিবারিক সূত্রে জানাযায়, জেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি প্রয়াত নাসির উদ্দিন তালুকদার ১৯৫৭ সালে পিরোজপুরের ধুপপাশা এলাকায় জন্মগ্রহন করেন। পড়াশুনা শেষে তিনি রাজনীতিতে মাওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাষানীর ভাষানী ন্যাপের যোগদেন। তিনি বিপ্লবী ছাত্রইউনিয়ন এর রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন এবং পরবর্তিতে তিনি জাতীয় ছাত্রদলে যোগদেন। তিনি দক্ষিণ উপকূলীয় সাংস্কৃতিক জোটের নেতৃত্ব দেন এবং পিরোজপুর ধ্বনি শিল্পোগোষ্ঠির প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি জাগো ছাত্রদলের সাবেক আহবায়ক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন।

প্রয়াত নাসির উদ্দিন তালুকদার বিএনপি প্রতিষ্ঠার পরে জেলা যুবদলের প্রতিষ্ঠাতা সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীতে তিনি জেলা যুবদলের সভাপতি নির্বাচিত হন। এরপর তিনি কেন্দ্রিয় যুবদলের সাবেক বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি জেলা বিএনপির সাবেক যুব বিষয়ক সম্পাদক ছিলেন। এছাড়াও তিনি জেলা শিল্পকলা একাডেমীর নির্বাচিত সদস্য সহ বিভিন্ন সামাজিক ও সেবামূলক প্রতিষ্ঠানের সাথে জড়িত ছিলেন। তিনি ১৯৯৭ সালে মাত্র ৪০ বছর বয়সে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে না ফেরার দেশে পাড়ি জমান।

নাসির উদ্দিন তালুকদারের বাল্যবন্ধু সিনিয়র সাংবাদিক মনিরুজ্জামান নাসিম আলী বলেন, প্রয়াত নাসির আহম্মেদ তালুকদার একজন সাংস্কৃতি ও ক্রিড়া সংগঠক ছিলেন। জীবনে তিনি গণ মানুষের রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। তিনি ছিলেন সংগ্রামী সাহসী ও প্রতিবাদী কন্ঠস্বর। জীবনের বেশিরভাগ সময়ই জাতীয়তাবাদী দলের পেছনে ব্যয় করেছেন।

জেলা বিএনপির আহবায়ক আলমগীর হোসেন বলেন, নাসির আহম্মেদ তালুকদার ছিলেন একজন সংগ্রামী মানুষ ছাত্র জীবন থেকে শুরু করে ছাত্র আন্দোলন ও গণতান্ত্রিক আন্দোলনে তিনি জীবনের অনেক সময় ব্যয় করেছেন। জাতীয়তাবাদী দল প্রতিষ্ঠার পর থেকে নিরলস ভাবে কাজ করেছেন এই দলের প্রতি। একজন কর্মবান্ধব, দলবান্ধব দেশ প্রেমিক মানুষ ছিলেন নাসির ভাই। তিনি দলের সকল দু:সময়ে পাশে ছিলেন বিশেষ করে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মৃত্যুর পরে তিনি দলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। আমরা তাকে তার আদর্শকে মনে রাখবো এবং তার পরিবারের পাশে থাকবো।

জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি গাজী নুরুজ্জামান বাবুল বলেন, নাসির আহম্মেদ তালুকদার ছিলেন একজন দক্ষ যুব নেতা। তিনি দক্ষিণ উপকূলীয় সাংস্কৃতিক জোটের নেতৃত্ব দেন এবং পিরোজপুর ধ্বনি শিল্পোগোষ্ঠির প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি অপসাংস্কৃতি থেকে যুব সমাজকে রক্ষ করতে ধ্বনি শিল্পোগোষ্ঠির প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি ছিলেন যুব সমাজের আইকন। ব্যাক্তিগত জীবনে কিছু না পেলেও প্রথমে মাওলানা ভাষানী এবং পরে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের সাথে রাজনীতি করে গেছেন। জাতীয়তাবাদী শক্তিকে প্রতিষ্ঠা করার লক্ষে আমরণ কাজ করে গেছেন। তার রুহের মাগফিরাত কামনা করছি।

 

 

বিভাগ: অন্যান্য,জাতীয়,টপ নিউজ,ফিচার,বরিশাল বিভাগ,ব্রেকিং নিউজ,মিডিয়া,রাজনীতি,সারাদেশ