আজ- মঙ্গলবার, ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

পিরোজপুরে প্রবাসীর স্ত্রী কে শ্বশুড় ও শ্বাশুড়ী কর্তৃক নির্যাতনের ভিডিও ফেসবুকে : শ্বাশুড়ী গ্রেপ্তার

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় সৌদি আবর প্রবাসী এক ব্যক্তি স্ত্রীকে ছোট শিশুর সামনে শ্বশুড় ও শ্বাশুড়ী কর্তৃক নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনার ভিডিও ফেসবুকে প্রচারের পরে গতকাল শনিবার রাতে অভিযুক্ত শ্বাশুড়ী আলেয়া বেগম কে গ্রেপ্তার করেছে মঠবাড়িয়া থানা পুলিশ।
পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলার আমারগাছিয়া ইউনিয়নের মানিকখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে এবং গতকাল শনিবার রাতে এ বিষয়ে আহত গৃহবুধূ তানজিলা বেগমের বাবা ছিদ্দিক মীর বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছে।
আহত তানজিলা বেগম (২৬) জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলার আমারগাছিয়া ইউনিয়নের মানিকখালী গ্রামের সৌদি আবর প্রবাসী নাসির উদ্দিন মুন্সির স্ত্রী।
মামলায় অভিযুক্তরা হলো পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলার আমারগাছিয়া ইউনিয়নের মানিকখালী গ্রামের আহত গৃহবধূর শ্বশুড় ধলু মুন্সি (৫৫), শ্বাশুড়ী আলেয়া বেগম (৪৫), চাচা শ্বশুড় নূর মোহাম্মদ।
আহত গৃহবধূর বাবা ছিদ্দিক মীর জানান, গত বৃহস্পতিবার তার মেয়ের সাথে পারিবারিক একটি বিষয় নিয়ে তার শ্বাশুড়ী আলেয়া বেগমের সাথে তর্ক হয়। এ সময় তার মেয়ের শ্বশুড় ধলু মুন্সি তার মেয়েকে ধরে ঘরের সামেন উঠানে ছুড়ে মারে এবং শ্বশুড়, শ্বাশুড়ী ও চাচা শ্বশুড় মিলে নির্যাতন চালায়। এ ঘটনা তার ৮ বছরের নাতি নারগিস মোবাইলে ভিডিও করে। পরে বিষয়টি তিনি জানতে পেরে শ্বশুড় বাড়ি থেকে তার আহত মেয়েকে উদ্ধার করে মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।
মঠবাড়িয়া থানার ওসি আ জ মো. মাসুদুজ্জামান, ঘটনা জানার পরপরই শনিবার রাতে আহত গৃহবধূ তানজিলার বাবা ছিদ্দিক মীর বাদি হয়ে থানায় মামলা করলে অভিযুক্ত শ্বাশুড়ী আলেয়া বেগমকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ এবং অন্য আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্ট চলছে।

বিভাগ: অন্যান্য,জাতীয়,টপ নিউজ,বরিশাল বিভাগ,মিডিয়া,সারাদেশ

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.