আজ- বৃহস্পতিবার, ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

মৃত্যুর পরও যেন মানুষের মাঝে বেঁচে থাকা যায় সেজন্যই আমাদের সবার ভাল কিছু করে যাওয়া উচিত -গৃহায়ণ ও গণপূর্ত শ. ম. রেজাউল করিম

গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী এ্যাড শ. ম. রেজাউল করিম এমপি বলেছেন, পিরোজপুর-১ আসনের তিনটি উপজেলার অবকাঠামো উন্নয়নে প্রায় ৩ হাজার ৫০০ কোটি টাকার ব্যাপক উন্নয়ন কর্মসুচি গ্রহন করেছে সরকার। এর মধ্যে জেলার নেছারাবাদ (স্বরুপকাঠীর)উপজেলার সাথে নাজিরপুর উপজেলা হয়ে পিরোজপুর সদরের সাথে সরাসরি সড়ক যোগাযোগের জন্য সন্ধ্যা নদী, তালতলা নদীতে ব্রীজ,কালভার্ট সহ রাস্তা তৈরির সম্ভাব্যতা যাচাই ইতোমধ্যেই শেষ হয়েছে। তিনি বলেন, চেয়ারম্যান, ইউপি সদস্য, উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইসচেয়ারম্যান,কাউন্সিলর মেয়রদের উদ্দেশ্যে বলেন, আমরা জন প্রতিনিধিরা যার যে এলাকা থেকে নির্বাচিত হয়েছি, সে এলাকার উন্নয়নের জন্য এলাকার মানুষদের নিয়ে একত্রে কাজ করতে হবে। এলাকার সবার মতামত নিয়ে অগ্রাধিকার ভিত্তিতেই কাজ করে যেতে হবে। মন্ত্রী বৃহস্পতিবার পিরোজপুরে সদর উপজেলার অবকাঠামো উন্নয়ন শীর্ষক এক মতবিনিময় সভায় এ কথা বলেন।
মন্ত্রী এ সময় আরও বলেন, দলমত নির্বিশেষে সকলে মিলে সহযোগিতা করলে পিরোজপুরের উন্নয়ন এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র। তিনি বলেন, রাজনৈতিক দলীয় মত পার্থক্য থাকতেই পারে, তা আমরা মাঠে মোকাবেলা করবো। কিন্তু পিরোজপুরের উন্নয়নে দলমত নির্বিশেষে সকলের অংশ গ্রহন করা উচিৎ। কারন মানুষ মরনশীল। মৃত্যুর পরও যেন মানুষের মাঝে বেচে থাকা যায় সেজন্যই আমাদের সবার ভাল কিছু করে যাওয়া উচিত বলে মন্ত্রী সকলকে অনুরোধ করেন।
সকালে সদর উপজেলা পরিষদের শহীদ ওমর ফারুক মিলনায়তনে পিরোজপুর এলজিইডির আয়োজনে এ মতবিনিময় সভায় পিরোজপুর সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আসিফ মাহমুদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী এ্যাড শ. ম. রেজাউল করিম এমপি। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পরিকল্পনা মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্তি সচিব আখতারুজ্জামান খান কবির, জেলা প্রশাসক আবু আলী মোঃ সাজ্জাদ হোসেন, জেলা পুলিশ সুপার হায়াতুল ইসলাম খান, পিরোজপুর পৌরসভার মেয়র আলহাজ¦ মোঃ হাবিবুর রহমান মালেক, এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী সুশান্ত রঞ্জন রায়। এসময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা রেবেকা খান, পিরোজপুর সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান এস এম বায়েজিদ হোসেন, প্রমুখ। সভায় সদর উপজেলার সাতটি ইউনিয়ন ও পিরোজপুর পৌরসভার মেয়র,কাউন্সিলর, চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যগন নিজ নিজ এলাকার নানাবিধ সমস্যার কথা তাদের বক্তব্যে তুলে ধরেন।

বিভাগ: অন্যান্য,জাতীয়,টপ নিউজ,বরিশাল বিভাগ,ব্রেকিং নিউজ,রাজনীতি,সারাদেশ