আজ- শুক্রবার, ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৯ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শোকের রাতে ইন্দুরকানী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের সরকারী বাসভবনে আলোকশয্যা : স্থানীয় আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দের ক্ষোভ

পিরোজপুরের ইন্দুরকানী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইন্দুরকানী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মতিউর রহমান এর সরকারী বাস ভবনে জাতীয় শোক দিবসের আগের রাতে আলোকশয্যা করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছে ইন্দুরকানী উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ। বুধবার জাতীয় শোক দিবসের আগের রাতে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এর সরকারী বাসভবনে জমকালো আলোকশয্যা দেখা যায় এতে ক্ষোভ প্রকাশ করে উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দরা।
ইন্দুরকানী উপজেলা আওয়ামীলীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক এইচ এম বজলুর রহমান মিন্টু জানান, জাতীয় শোক দিবসের আগের রাতে বাড়িতে আলোকশয্যা করা কোন আওয়ামীলীগের নেতা শোভা পায় না কারন এই রাতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বপরিবারে হত্যা করা হয়। এই রাতে আওয়ামীলীগের কোন নেত কর্মী বাড়িতে আলোকশয্যা প্রজ্জলন করতে পারে না।
ইন্দুরকানী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাইদুর রহমান সাইদ জানান, শোক দিবসের আগের রাতে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মতিউর রহমান সরকারী বাসভবনে আলোকশয্যা প্রজ্জলন করেছে এটি আমাদের জন্য অত্যান্ত লজ্জার বিষয়। আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাই।
ইন্দুরকানী উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক মাতুব্বর জানান, শোকের এ মাসে কোন আওয়ামীলীগ নেতা বাড়িতে আলোকশয্যা জ্বালাতে পারে না আমরা এর নিন্দা জানাই।
ইন্দুরকানী উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ইকরামুল সিকদার জানান, এ ঘটনাটি অত্যান্ত দুক্ষজনক। জাতীয় শোক দিবসের আগের রাতে বাড়িতে আলোকশয্যা প্রজ্জলন এটা কখনো মেনে নেওয়া যায় না। আমরা বিষয়টি জেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দদেরে জানিয়েছি।
এ বিষয়ে ইন্দুরকানী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইন্দুরকানী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মতিউর রহমান এর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।

বিভাগ: অন্যান্য,জাতীয়,টপ নিউজ,বরিশাল বিভাগ,ব্রেকিং নিউজ,রাজনীতি,সারাদেশ