আজ- শুক্রবার, ১৫ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

হঠাৎ কী হয়েছিল ফেসবুকের?

বিশ্বের সবচেয়ে বড় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে হঠাৎতই রাত ১০টার পর থেকেই ডাউন হয়ে যায়। এতে পৃথিবী জুড়ে কোটি কোটি ব্যবহারকারী চরম ভোগান্তিতে পড়ে। টানা ১০ ঘণ্টা পর অবশেষে বৃহস্পতিবার সকালের দিকে ফেসবুক আবারও স্বাভাবিক অবস্থায় আসে। তবে এখনও সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন ইনস্টাগ্রাম ও হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীরা।

বুধবার (১৩ মার্চ) রাত ১০ টার পরেই ডাউন হয়ে যায় জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক। বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) সকালের দিতে ফের স্বাভাবিক হওয়ায় ব্যবহারকারীদের মধ্যে স্বস্তি ফিরে এসেছে। তবে একটি প্রশ্ন বারবার ঘুরপাক খাচ্ছে, আসলেই কী হয়েছিল ফেসবুকের?

এদিকে ফেসবুক ব্যবহারকারীরা অভিযোগ করে জানিয়েছেন, গতকাল বুধবার বাংলাদেশ সময় রাত সোয়া ১০টার পর থেকে এই সমস্যা দেখা যায়। এ সময় তারা নিজেদের প্রোফাইল লগ ইন করতে পারেননি। কিছু কিছু প্রোফাইল লগ ইন করা গেলেও পড়তে হয়েছে টেকনিক্যাল সমস্যায়। কয়েকটি ফিচার কাজ করেনি। সমস্যা হয়েছে মেসেঞ্জারে ছবি আদান প্রদানেও। কোনো পোস্ট, ছবি, ভিডিও শেয়ার করা যায়নি ফেসবুকের নিউজ ফিডে। এ ছাড়া অফিসিয়াল পেজ থেকেও কোনো পোস্ট করা যায়নি।

সামাজিক মাধ্যমগুলো ‘ডিডস’ হ্যাকারের কবলে পড়েছে। এ কারণে অ্যাকাউন্ট সাময়িক বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। পরে জানা যায়, হ্যাকিং নয়, ফেসবুকে কিছু কারিগরি সমস্যা হওয়ায় তা সাময়িক বন্ধ করে দেওয়া হয়। ফেসবুক ছাড়াও একই সমস্যা দেখা গেছে ইন্সটগ্রাম এবং মেসেঞ্জারেও।

পরে এক টুইটে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জানায়, যত দ্রুত সম্ভব সমস্যার সমাধান করার জন্য আমরা কাজ করছি। তবে এটা নিশ্চিত যে সমস্যাটি ‘ডিডস’আক্রমণের সঙ্গে সম্পর্কিত নয়।

তবে ঠিক কী কারণে সমস্যা হয়েছে- এ বিষয়ে ফেসবুকের পক্ষ থেকে সুস্পষ্ট কোনো বক্তব্য দেওয়া হয়নি।

ফেসবুকের হঠাৎ কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যাওয়ার ঘটনা এবারই নতুন নয়। এর আগে ফেসবুকের কারিগরি হালনাগাদের কারণে সিস্টেম কিছুক্ষণের জন্য বন্ধ হওয়ার ঘটনা ঘটেছিল।

২০১৫ সালের এক ঘটনায় ৫০ মিনিট বন্ধ ছিল ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম। ২০১০ সালে ডেটাবেইস হালনাগাদের কারণে আড়াই ঘণ্টা বন্ধ ছিল ফেসবুক। এবারে দীর্ঘ সময় ধরে ফেসবুক বন্ধ থাকার বিষয়টি টুইটারে হ্যাশট্যাগ ফেসবুক ডাউন নামে ছড়িয়ে পড়েছে।

বিভাগ: টপ নিউজ