আজ- শুক্রবার, ২২শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৭ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

এক নজরে এসএসসির ফলাফল, শীর্ষে রাজশাহী, এগিয়ে ছাত্রীরা

এসএসসির ফল প্রকাশের পর সারাদেশে বইছে আনন্দ-উচ্ছ্বাস। শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা মিষ্টি খাওয়াচ্ছেন একে-অপরকে। বিদ্যালয়গুলোতে শিক্ষার্থীদের নেচে-গেয়ে আনন্দ প্রকাশ করতেও দেখা গেছে। সোমবার (৬ মে) সকাল সাড়ে ১০টায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করে মাধ্যমিকের ফল ঘোষণা করেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে না থাকায় আনুষ্ঠানিকভাবে ফলাফল প্রকাশ করেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এ সময় ফোনের মাধ্যমে লন্ডন থেকে সকল পরীক্ষার্থীদের শুভেচ্ছা জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শেখ হাসিনা যাদের ফলাফল ভালো হয়নি তাদের আরও মনোযোগ দিয়ে পড়াশোনার পরামর্শ দিয়ে বলেন, যারা খারাপ করেছ তাদের মন খারাপের কিছু নেই। তারা পড়াশোনা করে আশা করি ভবিষ্যতে ভালো করবে।

এ সময় মমতাময়ী প্রধানমন্ত্রী শিক্ষার্থীদের ফলাফল দেখতে আগ্রহ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, আপনারা দ্রুত আমার কাছে ফলাফল পাঠিয়ে দেন। আমার প্রাণপ্রিয় শিক্ষার্থীরা কেমন করেছে তা দেখার জন্য আমি অপেক্ষা করছি।

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় এবার ২১ লাখ ২৭ হাজার ৩৩৩ শিক্ষার্থী অংশ নেয়। যা গতবারের চেয়ে ১ লক্ষ বেশি।

এবার এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় এবার ৮২ দশমিক ২০ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ লাখ ৫ হাজার ৫৯৪ জন। গতবার ৭৭ দশমিক ৭৭ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছিল; জিপিএ-৫ পেয়েছিল ১ লাখ ১০ হাজার ৬২৯ জন।

সেই হিসাবে এবার পাসের হার বেড়েছে ৪ দশমিক ৪৩ শতাংশ পয়েন্ট। আর পূর্ণাঙ্গ জিপিএ পাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা কমেছে ৫ হাজার ৩৫ জন।

এবার আটটি সাধারণ বোর্ডে ৮২ দশমিক ৮০ শতাংশ, মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডে ৮৩ দশমিক ০৩ শতাংশ এবং কারিগরি শিক্ষা ৭২ দশমিক ২৪ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে।

ফলের পরিসংখ্যান থেকে জানা গেছে, রাজশাহী বোর্ডে পাসের হার ৯১ দশমিক ৬৪ শতাংশ। এ বোর্ডে গত বছর পাসের হার ছিল ৮৬ দশমিক ০৭ শতাংশ। ৭০ দশমিক ৮৩ শতাংশ পাসের হার নিয়ে সবার নিচে অবস্থান করছে সিলেট বোর্ড।

আট বোর্ডের মধ্যে এবার ঢাকায় পাসের হার ৭৯ দশমিক ৬২, কুমিল্লায় ৮৭ দশমিক ১৬, বরিশালে ৭৭ দশমিক ৪১, যশোর বোর্ডে ৯০ দশমিক ৮৮, চট্টগ্রাম বোর্ডে ৭৮ দশমিক ১১ ও দিনাজপুর বোর্ডে ৮৪ দশমিক ১০ শতাংশ।

জিপিএ-৫ প্রাপ্তির দিক থেকে এবারও যথারীতি সেরা ঢাকা বোর্ড। এ বোর্ডে ২৯ হাজার ৬৮৭ জন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছে। গত বছর ঢাকা বোর্ডে জিপিএ-৫ পেয়েছিল ৪১ হাজার ৫৮৫ জন।

এছাড়া রাজশাহী বোর্ডে ২২ হাজার ৭৯৫, কুমিল্লা বোর্ডে ৮ হাজার ৭৬৪, যশোর বোর্ডে ৯ হাজার ৯৪৮, চট্টগ্রাম বোর্ডে ৭ হাজার ৩৯৩, বরিশাল বোর্ডে ৪ হাজার ১৮৯, সিলেট বোর্ডে ২ হাজার ৭৫৭ ও দিনাজপুর বোর্ডে ৯ হাজার ২৩ জন পরীক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছে।

প্রাপ্ত ফলাফলে ছাত্রদের চেয়ে ছাত্রীদের পাসের হার বেশি। ছাত্রদের তুলনায় ১.৫৩% ছাত্রী বেশি পাস করেছে।


আজ সকালে শিক্ষামন্ত্রীর হাতে ফলাফলের সারসংক্ষেপ তুলে ধরেন বিভিন্ন শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানরা।

বেলা ১২টা থেকে ফল পাওয়া যাবে বলে জানান শিক্ষামন্ত্রী।

সাধারণত প্রধানমন্ত্রীর হাতে ফলাফলের সারসংক্ষেপ তুলে দেন বোর্ড চেয়ারম্যানরা। পরে সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে শিক্ষামন্ত্রী ফলাফলের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা লন্ডনে চোখের চিকিৎসায় অবস্থান করায় এবার বিভিন্ন বোর্ডের চেয়ারম্যানরা শিক্ষামন্ত্রীর কাছে ফল হস্তান্তর করেন।

ফলাফল প্রকাশ উপলক্ষে লন্ডন থেকে পাঠানো প্রধানমন্ত্রীর বাণী পড়ে শোনান শিক্ষামন্ত্রী। পরে প্রধানমন্ত্রী মোবাইল ফোনে শুভেচ্ছা জানিয়ে কথা বলেন। তা মাইকে শোনানো হয়।

ফলাফল জানবেন যেভাবে

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে পাওয়া যাবে। এ জন্য SSC লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে আবার স্পেস দিয়ে পাসের বছর লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে।

আর মাদরাসা বোর্ডের ক্ষেত্রে Dakhil লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে আবার স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে পাসের সাল লিখে পাঠাতে হবে পাঠাতে হবে ১৬২২২ নম্বরে।

এছাড়া কারিগরি বোর্ডের এসএসসি ভোকেশনাল পরীক্ষার ফল জানতে ssc লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে পাসের সাল লিখে পাঠাতে হবে ১৬২২২ নম্বরে।

এছাড়াও www.educationboardresults.gov.bd ওয়েবসাইটে গিয়ে ফল ডাউনলোড করা যাবে।

ফল পুনঃনিরীক্ষা

রাষ্ট্রায়াত্ত মোবাইল অপারেটর টেলিটক থেকে আগামী ৭ থেকে ১৩ মে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন করা যাবে।

ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন করতে RSC লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে বিষয় কোড লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে।

ফিরতি এসএমএসে ফি বাবদ কত টাকা কেটে নেওয়া হবে তা জানিয়ে একটি পিন নম্বর (পার্সোনাল আইযেন্টিফিকেশন নম্বর) দেওয়া হবে।

আবেদনে সম্মত থাকলে RSC লিখে স্পেস দিয়ে YES লিখে স্পেস দিয়ে পিন নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে যোগাযোগের জন্য একটি মোবাইল নম্বর লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে।

প্রতিটি বিষয় ও প্রতি পত্রের জন্য ১২৫ টাকা হারে চার্জ কাটা হবে।

যে সব বিষয়ের দুটি পত্র (প্রথম ও দ্বিতীয় পত্র) রয়েছে, যেসব বিষয়ের ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন করলে দুটি পত্রের জন্য মোট ২৫০ টাকা ফি কাটা হবে।

একই এসএমএসে একাধিক বিষয়ের আবেদন করা যাবে, এক্ষেত্রে বিষয় কোড পর্যায়ক্রমে ‘কমা’ দিয়ে লিখতে হবে।

 

বিভাগ: শিক্ষাঙ্গন