আজ- রবিবার, ১লা বৈশাখ, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ১৪ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে অরুন নামে এক সংখ্যালঘুর উপরে হামলার অভিযোগ

পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে সংখ্যালঘু সবিতা রানী ও তার স্বামী অরুনকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। দির্ঘদিন ধরে সংখ্যালঘু পরিবারটিকে বিভিন্ন রকম হুমকি দিয়ে আসছিলো কতিপয় যুবক এরই ধারাবাহিকতায় আজ শনিবার ইন্দুরকানী উপজেলা পরিষদের সামনে তাদের উপরে হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে জানান অরুন কুমার।

অরুন কুমার জানান, দির্ঘদিন ধরে আমাকে এবং আমার পরিবারকে হুমকি দিয়ে আসছিলে এলাকার লতিফ কমান্ডারের ছেলে সুমন। আজকে উপজেলা পরিষদের সামনে পেয়ে সুমন তার সাথে থাকা লোকজনদের নিয়ে জিআই পাই লোহার রড দিয়ে আমাকে পিটিয়ে আহত করে ফেলে রেখে যায়। এসময় মনিরুজ্জামান জামাল ভাই এর সামনেই হামলা চালায় তারা। আমরা আওয়ামীলীগ করি এটাই আমাদের অপরাধ। স্থানীয়রা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কম্পেলেক্সে নিয়ে যায়। সেখন থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পিরোজপুর জেলা হাসপতালে পাঠায়।

আহত অরুনের স্ত্রী সবিতা রানী জানান, নির্বাচন এলই আমরা চাপে থাকি সামনে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন এর আগে জাতীয় নির্বাচন চলে গেছে। লতিফ কমান্ডারের ছেলে সুমন, মনিরুজ্জামান মৃধা সহ ৮ থেকে ১০ জন লোক মিলে আমার স্বামীর উপরে হামলা চালায়। আমরা এর বিচার চাই। আমাদের উপরে নির্যাতন বন্ধ হোক।

পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে চিকিৎসক জানান, রোগীর শরীরের বিভিন্ন স্থানে পিটানোর চিহ্ন রয়েছে। প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে ভর্তি করা হয়েছে।

এবিষয়ে অভিযুক্ত সুমনের সাথে যোগাযোগ কারার চষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

ইন্দুরকানী থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে আনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বিভাগ: অন্যান্য,জাতীয়,টপ নিউজ,বরিশাল বিভাগ,ব্রেকিং নিউজ,মিডিয়া,সারাদেশ