আজ- শনিবার, ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১লা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

পিরোজপুরে বাল্য বিবাহ ও যৌন হয়রানী প্রতিরোধে অভিভাবক সমাবেশ

পিরোজপুরে বাল্য বিবাহ ও যৌন হয়রানী প্রতিরোধে সোমবার পিরোজপুর কিয়ামউদ্দিন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অভিভাবক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রিসোর্স ইন্টিগ্রেশন সেন্টার (রিক) এর আয়োজনে ও পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ) এর সহায়তায় এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
বাল্য বিবাহ ও যৌন হয়রানী প্রতিরোধ অভিভাবক সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোল্লা আজাদ হোসেন।
পিরোজপুর যৌন হয়রানী রোধ কমিটির আহবায়ক খালেদা আক্তার হেনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন, মহিলা বিষায়ক কর্মকর্তা নুসরাত জাহান, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম বাদল, জেলা মহিলা পরিষদের সভাপতি মনিকা মন্ডল পিরোজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি জহিরুল হক টিটু, কাউন্সিলর সাইদুল্লাহ লিটন। সভা পরিচালনা করেন আ ফ ম রেজাউল করিম ও মিশু রহমান।
প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, বাল্য বিবাহ ও যৌন হয়রানী প্রতিরোধে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, শিক্ষক, অভিভাবক, এবং স্থানীয় জনসাধারণের সচেতনতা বৃদ্ধি করা প্রয়োজন। বাল্য বিবাহ বন্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলা উচিত। বাংলাদেশে বাল্য বিবাহ একটি মারাত্মক সমস্যা। বাল্য বিবাহ নিরোধ আইন অনুসারে ছেলেদের বিবাহের বয়স নুন্যতম ২১ এবং মেয়েদের বয়স ১৮ হওয়া বাধ্যতামূলক। অশিক্ষা, দারিদ্র, নিরাপত্তাহীনতা ও সামাজিক নানা কুসংস্কারের কারণে এ আইনের তোয়াক্কা না করে বাল্য বিবাহ হয়ে আসছে। বাল্য বিবাহের প্রধান কুফল নারী শিক্ষার অগ্রগতি ব্যাহত হওয়া।
বাল্য বিবাহের ফলে বিবাহ বিচ্ছেদের আশংকা তৈরী হওয়া ছাড়াও নানা পারিবারিক অশান্তি দেখা দেয়।

বিভাগ: অন্যান্য,জাতীয়,টপ নিউজ,বরিশাল বিভাগ,ব্রেকিং নিউজ,মিডিয়া,সারাদেশ