আজ- সোমবার, ১১ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

পিরোজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির নির্বাহী প্রকৌশলী হাফিজুর রহমানের বিরুদ্ধে ঢালাও দুর্নীতির অভিযোগ

পিরোজপুর প্রতিনিধি: পিরোজপুর পল্লী বিদ্যুৎ বিভাগের ঠিকাদারদের বিল পাশ করাতে, ক্লোজ- আউট, ভেরিয়েশন অনুমোদন, সময়সীমার চিঠি স্বাক্ষর সহ নানা বিধি ঢালও দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে পিরোজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির নির্বাহী প্রকৌশলী মো: হাফিজুর রহমানের বিরুদ্ধে। আর এ বিষয়ে বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুৎ বোর্ডের চেয়ারম্যান বরাবরে লিখিত অভিযোগ করেছে স্থানীয় ঠিকারদারবৃন্দ।
লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানাযায়, পিরোজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিতে গত ১৩/০৯/১৮ তারিখ নির্বাহী প্রকৌশলী মো: হাফিজুর রহমান যোগদান করেন। যোগদানের পর থেকেই তিনি পল্লী বিদু্যুৎ সমিতিকে একটি দুর্নীতির আখড়ায় পরিনত করেছে। ঘুষ বা পারসেন্টিস ছাড়া কোন কাজ করেন না নির্বাহী প্রকৌশলী মো: হাফিজুর রহমান। পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ঠিকাদারদের কাছ থেকে বিল পাশ করাতে ২% করে উৎকোচ, ভেরিয়েশন অনুমোদন করতে ৫ হাজার টাকা, সময়সীমার চিঠি স¦াক্ষর করতে ৩ হাজার টাকা, ক্লোজ-আউট অনুমোদন করতে ৫ হাজার টাকা, ষ্টোর থেকে মালামাল ছাড়াতে সার্ভিস তারের ড্রাম প্রতি ১ হাজার টাকা, ট্রান্সফর্মার প্রতি ১ হাজার টাকা, কার্যাদেশ রির্পোট করাতে ২ হাজার টাকা সহ ফাইনাল বিল অনুমোদন করাতে পারসের্ন্টিস ছাড়াও তাকে অগ্রিম ৫ হাজার টাকা করে দিতে হয় নির্বাহী প্রকৌশলী মো: হাফিজুর রহমানকে। এটা এক প্রকার অলিখিত আইন তৈরি করেছেন তিনি। এ বিষয়ে কেউ যদি প্রতিবাদ করে তাহলে তার ফার্ম ব্লাকলিষ্ট করার হুমকি দিয়ে থাকেন।
কয়েকজন ঠিকাদার অভিযোগ করে জানান, ২০২১ সালে ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেয়ার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যে ভিশন নিয়েছে তা বাস্তবায়নের জন্য আমার সবাই যখন একসাথে কাজ করে যাচ্ছি তখন পিরোজপুর পল্লী বিদ্যুতের নির্বাহী প্রকৌশলী মো: হাফিজুর রহমানের নানা বিধ দুর্নীতির কারণে তা পিছিয়ে পড়ছে। দুর্নীতির বিরুদ্ধে সরকার যে যুদ্ধ ঘোষনা করেছে তাকে বিদ্ধাআঙ্গুল দেখিয়ে পিরোজপুর পল্লী বিদ্যুতকে পরিনত করেছে একটি দুর্নীতির আখড়ায়। আর এ বিষয়ে কোন ঠিকাদার যদি প্রতিবাদ করে তাহলে তাকে নান রকম হয়রানী ও বিভিন্ন ভাবে মামলায় জড়ানোর হুমকি দিয়ে থাকে হাফিজুর রহমান। এমন অবস্থায় তার নির্বাহী প্রকৌশলী মো: হাফিজুর রহমানের দুর্নীতি ও অপকর্মের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিলে প্রধানমন্ত্রীর ভিশন পিরোজপুরে বাস্তবায়ন কবে না। তাই ঠিকাদারবৃন্দ এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
অভিযোগের বিষয়ে নির্বাহী প্রকৌশলী হাফিজুর রহমানের সাথে যোগাযোগের জন্য তার মোবাইল ফোনে বারবার কল করলেও তিনি ফোন রিভিস করেননি।

বিভাগ: জাতীয়,বরিশাল বিভাগ,ব্রেকিং নিউজ,সারাদেশ