আজ- শুক্রবার, ২২শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৭ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

মা-বাবার মমতায় শিক্ষার্থীদের শিক্ষাদান করুন … গণপূর্ত মন্ত্রী

গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এমপি বলেছেন, শিক্ষাকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে নাজিরপুরকে আধুনিক, উন্নত ও সমৃদ্ধ শিক্ষিত মানুষের জনপদে পদে পরিণত করতে হবে। বর্তমান সরকার শিক্ষাবান্ধব সরকার বলে এ বছরের বাজেটে শিক্ষা খাতে বেশি বরাদ্দ রেখেছে। শিক্ষাকে আধুনিক ও যুগোপযুগী করতে হলে বৈজ্ঞানিক ও কারিগরী শিক্ষাকে অগ্রাধিকার দিতে হবে।
শনিবার দুপুরে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি মিলনায়তনে নাজিরপুর উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়সমূহে মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টর ও সাউন্ড সিস্টেম বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
মন্ত্রী আরও বলেন, শিক্ষাবিহীন জীবন হচ্ছে চন্দ্রহীন অন্ধকার আকাশ। আর প্রাথমিক শিক্ষা হচ্ছে শিক্ষা জীবনের বুনিয়াদ। জীবনের এই ভিত্তি দুর্বল হলে মানুষের ভবিষ্যৎ দুর্বল হয়ে যায়। এই ভিত্তি নির্মাণ করবেন প্রাথমিক শিক্ষকবৃন্দ।
প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, আপনার স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের মা-বাবার মমতায় শিক্ষাদান মনে করুন। নিজের সন্তানকে যে মূল্যবোধ ও নৈতিকতা শিক্ষা দিতেন তাই তাদেরকে শিক্ষা দিন। মনে রাখবেন আপনারা যদি ক্লাসে ফাঁকি দেন তাহলে আধুনিক বাংলাদেশ বিনির্মানের কারিগরকে ধংস করার জন্য ফাঁকি দিলেন।
মন্ত্রী আরো বলেন, সরকার আপনাদের কি দেয়নি, বেতন বাড়ানো হয়েছে, প্রধান শিক্ষকদের দ্বিতীয় শ্রেণীর মর্যাদা দেয়া হয়েছে। এখন সরকারকে কিছু দিতে হবে। এখনো অনেক শিক্ষক হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করে স্কুল থেকে চলে আসেন। দায়সারা ভাবে দায়িত্ব পালন করেন। অনেকে নানা অনিয়মের সাথে জড়িত। ছোট্ট এ উপজেলার সব ধরণের খবর আমার কাছে রয়েছে। আমি কারো নাম উল্লেখ করলাম না। কোন অনিয়ম করলে কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না। আগে যা করেছেন সব কিছু ভুলে এখন সবাইকে ভালো হতে হবে।
নাজিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার রোজী আকতারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন, পুলিশ সুপার হায়াতুল ইসলাম খান, উপজেলা চেয়ারম্যান অমূল্য রঞ্জন হালদার, উপজেলা শিক্ষা অফিসার শিকদার আতিকুর রহমান জুয়েল, প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির নাজিরপুর উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক নির্ঝন কান্তি সুতার, সহকারি শিক্ষক সমিতির সভাপতি কামরুল ইসলাম প্রমূখ।
উল্লেখ্য, এ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে উপজেলার ১৮২টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে ১১৪টি বিদ্যালয়ে মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টর ও সাউন্ড সিস্টেম বিতরণ করা হয়।

বিভাগ: অন্যান্য,জাতীয়,টপ নিউজ,বরিশাল বিভাগ,ব্রেকিং নিউজ,রাজনীতি,সারাদেশ